/
/
/
আজ কবি কামিনী রায়ের মৃত্যুবার্ষিকী
আজ কবি কামিনী রায়ের মৃত্যুবার্ষিকী
Relaks News 24
আপলোড সময় : 6 hours আগে
আজ কবি কামিনী রায়ের মৃত্যুবার্ষিকী
Print Friendly, PDF & Email

‘করিতে পারি না কাজ
সদা ভয় সদা লাজ
সংশয়ে সংকল্প সদা টলে –
পাছে লোকে কিছু বলে।’… কামিনী রায়।

কবি কামিনী রায় একাধারে প্রথিতযশা সমাজকর্মী ও নারীবাদী লেখক ছিলেন। বেথুন কলেজ হতে তিনি ১৮৮৬ সালে ভারতের প্রথম নারী হিসাবে সংস্কৃত ভাষায় সম্মানসহ স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন। ১৯৩৩ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর মারা যান তিনি। কামিনী রায় ১৮৬৪ সালের ১২ অক্টোবর বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জের (বর্তমান বাংলাদেশের বরিশাল বিভাগের ঝালকাঠি জেলা) বাসন্ডা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা চন্ডীচরণ সেন ছিলেন একজন ঐতিহাসিক উপন্যাস লেখক ও পেশায় বিচারক।

কন্যা কামিনী রায়ের প্রাথমিক শিক্ষার ভার চণ্ডীচরণ সেন নিজে গ্রহণ করেন। বার বৎসর বয়সে তাঁকে স্কুলে ভর্তি করে বোর্ডিংয়ে প্রেরণ করেন। কামিনী রায় ১৮৮০ সালে কলকাতা বেথুন স্কুল হতে এন্ট্রান্স (মাধ্যমিক) পরীক্ষা ও ১৮৮৩ সালে এফ.এ বা ফার্স্ট আর্টস (উচ্চ মাধ্যমিক সমমানের) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। ১৮৮৬ সালে তিনি স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন। স্নাতক ডিগ্রী অর্জনের পর ১৮৮৬ সালেই তিনি বেথুন কলেজের স্কুল বিভাগে শিক্ষয়িত্রীর পদে নিযুক্ত হন। কামিনী রায়ের শৈশবের দিনগুলি ছিল অনেক সুন্দর। ছোটবেলায় তাঁর পিতামহ তাঁকে কবিতা ও স্তোত্র আবৃত্তি করতে শেখাতেন। তাঁর মা গোপনে বর্ণমালা শিক্ষা দিতেন। কারণ তখনকার যুগে হিন্দু নারীদের লেখাপড়া গর্হিত কাজ হিসেবে বিবেচনা করা হতো।

কামিনী রায় মাত্র ৮ বছর বয়স থেকে কবিতা লিখতে শুরু করেন। তাঁর রচিত কবিতাগুলোতে জীবনের সুখ-দুঃখের সাবলীল প্রকাশ ঘটেছে। ১৮৮৯ সালে কামিনী রায়ের পনেরো বছর বয়সে প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘আলো ও ছায়া’প্রকাশিত হয়। এই কাব্যগ্রন্থের ভূমিকা লেখেন হেমচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়। কামিনী রায় একসময় ‘জনৈক বঙ্গমহিলা’ ছদ্মনামে লিখতেন। কামিনী রায়ের লেখা উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে: আলো ও ছায়া (১৮৮৯), নির্মাল্য (১৮৯১), পৌরাণিকী (১৮৯৭), মাল্য ও নির্মাল্য (১৯১৩), অশোক সঙ্গীত (সনেট সংগ্রহ, ১৯১৪), অম্বা (নাট্যকাব্য, ১৯১৫), দীপ ও ধূপ (১৯২৯), জীবন পথে (১৯৩০), একলব্য, দ্রোণ-ধৃষ্টদ্যুম্ন, শ্রাদ্ধিকী। অমিত্রাক্ষর ছন্দে রচিত ‘মহাশ্বেতা’ ও ‘পুণ্ডরীক’ তাঁর দু’টি প্রসিদ্ধ দীর্ঘ কবিতা। এ ছাড়া ১৯০৫ সালে তিনি শিশুদের জন্য গুঞ্জন নামের কবিতা সংগ্রহ ও প্রবন্ধ গ্রন্থ বালিকা শিক্ষার আদর্শ রচনা করেন।

তাঁর কবিতা পড়ে বিমোহিত হন সিবিলিয়ান কেদারনাথ রায়। পরবর্তীতে তিনি তাঁকে বিয়ে করেন। কিন্তু ১৯০৯ সালে কামিনী রায়ের স্বামীর মৃত্যু হয়। স্বামীর মৃত্যু শোক তাঁর ব্যক্তিগত জীবনে অনেক প্রভাব ফেলে, যা তাঁর কবিতায় প্রকাশ পায়। ১৯২৯ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কামিনী রায়কে ‘জগত্তারিণী স্বর্ণপদক’ প্রদান করা হয়। কামিনী রায় নারীশ্রমিক তদন্ত কমিশনের অন্যতম সদস্য (১৯২২-২৩), বঙ্গীয় সাহিত্য সম্মেলনে সাহিত্য শাখার সভানেত্রী (১৯৩০) এবং বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদের সহসভাপতি (১৯৩২-৩৩) ছিলেন। সাহিত্যচর্চার পাশাপাশি কামিনী রায় নারীকল্যাণমূলক কাজেও আত্মনিয়োগ করেন। শেষ জীবনে তিনি ঢাকার হাজারীবাগে বাস করতেন।

নিউজটি করেছেন : মাসুদ রানা
{{ reviewsTotal }}{{ options.labels.singularReviewCountLabel }}
{{ reviewsTotal }}{{ options.labels.pluralReviewCountLabel }}
{{ options.labels.newReviewButton }}
{{ userData.canReview.message }}

এ জাতীয় আরো খবর

আফ্রিকার ৬ দেশকে বিনামূল্যে শস্য পাঠাল রাশিয়া
আফ্রিকার ৬ দেশকে বিনামূল্যে শস্য পাঠাল রাশিয়া
হঠাৎ ধনী হলে মানুষ ভাবে ইংরেজিতে কথা বলা আধুনিকতা: প্রধানমন্ত্রী এম রানা,ঢাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, হঠাৎ টাকা-পয়সার মালিক হয়ে যাওয়া কিছু মানুষ মনে করে ইংরেজিতে কথা বলতে পারা আধুনিকতা। স্মার্ট হতে হলে শুধুমাত্র একটা ভাষা শিখতে হবে এবং সে ভাষায় কথা বলতে হবে আমি সেটা বিশ্বাস করি না। নিজের ভাষা শিখে অন্যের ভাষাও শেখা যায়। বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০২৪ উদযাপন উপলক্ষ্যে চারদিনের কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। সরকারপ্রধান বলেন, স্মার্ট হতে গেলে ইংরেজিতে কথা বলতে হবে তা নয়। তবে কর্মক্ষেত্রের প্রয়োজনে অনেক ভাষা শেখা দরকার। শিক্ষার মাধ্যমটা মাতৃভাষায় হওয়া উচিত, এর সঙ্গে শিশুদের আরও দু-তিনটি ভাষা শেখানোর দরকার। বাংলাকে সারা বিশ্বে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে। বিশ্বায়নের এই যুগে একাধিক ভাষা জানলে আত্মবিশ্বাস বাড়বে। মাতৃভাষা বাংলাকে রক্ষায় যারা আত্মত্যাগ করেছে, তাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যের শুরুতে শ্রদ্ধা জানান। বলেছেন, বাঙালি জাতি নিজের মাতৃভাষাকে মর্যাদা দেয়ার জন্য মহান আত্মত্যাগ করেছিলেন। বাঙালি জাতি রক্ত দিয়ে ভাষার মর্যাদা দিয়ে গেছে। তিনি আরও বলেন, নিজের ভাষা রক্ষা করার মধ্য দিয়ে একটা জাতি উন্নত জীবন পেতে পারে। আর আমাদের মাতৃভাষায় কথা বলার অধিকারটুকুও কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। এছাড়া একটা বিজাতীয় ভাষা আমাদের ওপর চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হয়। শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের দুর্ভাগ্য যে এখানে ইতিহাস বিকৃত করা হয়। পঁচাত্তরের পর ইতিহাসকে বিকৃত করা হয়েছিল। এমন সময় এসেছিল, আমরা যে বিজয়ী জাতি তাই ভুলিয়ে দেয়া হয়েছিল। হঠাৎ ধনী হলে মানুষ ভাবে ইংরেজিতে কথা বলা আধুনিকতা: প্রধানমন্ত্রী
হঠাৎ ধনী হলে মানুষ ভাবে ইংরেজিতে কথা বলা আধুনিকতা:...
শার্শার বাগআঁচড়া কেন্দ্রিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত
শার্শার বাগআঁচড়া কেন্দ্রিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে মহা...
ইউক্রেনের দোনেৎসকে মিসাইল হামলায় অন্তত ৬০ রুশ সেনা নিহত
ইউক্রেনের দোনেৎসকে মিসাইল হামলায় অন্তত ৬০ রুশ সেনা...
শার্শার বেনাপোলে মাতৃভাষা দিবসে দুই বাংলার মিলনমেলা
শার্শার বেনাপোলে মাতৃভাষা দিবসে দুই বাংলার মিলনমেল...
শেরপুরের শ্রীবরদীতে বাস-ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষে ট্রলির হেলপার নিহত 
শেরপুরের শ্রীবরদীতে বাস-ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষে ট্...
দারুল নাজাত হাতেখঁড়ি শিশু একাডেমির আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন
দারুল নাজাত হাতেখঁড়ি শিশু একাডেমির আন্তর্জাতিক মাত...
Relaks News 24 (7)
শেরপুরে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস...
আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস -২০২৪ উপলক্ষ্যে সকল শহিদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন
আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস -২০২৪ উপলক্ষ্যে স...
হাসিনার নেতৃত্বে সাম্প্রদায়িকতার বিষবৃক্ষ তুলে ফেলবো: কাদের
হাসিনার নেতৃত্বে সাম্প্রদায়িকতার বিষবৃক্ষ তুলে ফেল...
আফ্রিকার ৬ দেশকে বিনামূল্যে শস্য পাঠাল রাশিয়া
আফ্রিকার ৬ দেশকে বিনামূল্যে শস্য পাঠাল রাশিয়া
হঠাৎ ধনী হলে মানুষ ভাবে ইংরেজিতে কথা বলা আধুনিকতা: প্রধানমন্ত্রী এম রানা,ঢাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, হঠাৎ টাকা-পয়সার মালিক হয়ে যাওয়া কিছু মানুষ মনে করে ইংরেজিতে কথা বলতে পারা আধুনিকতা। স্মার্ট হতে হলে শুধুমাত্র একটা ভাষা শিখতে হবে এবং সে ভাষায় কথা বলতে হবে আমি সেটা বিশ্বাস করি না। নিজের ভাষা শিখে অন্যের ভাষাও শেখা যায়। বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০২৪ উদযাপন উপলক্ষ্যে চারদিনের কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। সরকারপ্রধান বলেন, স্মার্ট হতে গেলে ইংরেজিতে কথা বলতে হবে তা নয়। তবে কর্মক্ষেত্রের প্রয়োজনে অনেক ভাষা শেখা দরকার। শিক্ষার মাধ্যমটা মাতৃভাষায় হওয়া উচিত, এর সঙ্গে শিশুদের আরও দু-তিনটি ভাষা শেখানোর দরকার। বাংলাকে সারা বিশ্বে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে। বিশ্বায়নের এই যুগে একাধিক ভাষা জানলে আত্মবিশ্বাস বাড়বে। মাতৃভাষা বাংলাকে রক্ষায় যারা আত্মত্যাগ করেছে, তাদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যের শুরুতে শ্রদ্ধা জানান। বলেছেন, বাঙালি জাতি নিজের মাতৃভাষাকে মর্যাদা দেয়ার জন্য মহান আত্মত্যাগ করেছিলেন। বাঙালি জাতি রক্ত দিয়ে ভাষার মর্যাদা দিয়ে গেছে। তিনি আরও বলেন, নিজের ভাষা রক্ষা করার মধ্য দিয়ে একটা জাতি উন্নত জীবন পেতে পারে। আর আমাদের মাতৃভাষায় কথা বলার অধিকারটুকুও কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। এছাড়া একটা বিজাতীয় ভাষা আমাদের ওপর চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হয়। শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের দুর্ভাগ্য যে এখানে ইতিহাস বিকৃত করা হয়। পঁচাত্তরের পর ইতিহাসকে বিকৃত করা হয়েছিল। এমন সময় এসেছিল, আমরা যে বিজয়ী জাতি তাই ভুলিয়ে দেয়া হয়েছিল। হঠাৎ ধনী হলে মানুষ ভাবে ইংরেজিতে কথা বলা আধুনিকতা: প্রধানমন্ত্রী
হঠাৎ ধনী হলে মানুষ ভাবে ইংরেজিতে কথা বলা আধুনিকতা:...
শার্শার বাগআঁচড়া কেন্দ্রিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে মহান আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত
শার্শার বাগআঁচড়া কেন্দ্রিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে মহা...
ইউক্রেনের দোনেৎসকে মিসাইল হামলায় অন্তত ৬০ রুশ সেনা নিহত
ইউক্রেনের দোনেৎসকে মিসাইল হামলায় অন্তত ৬০ রুশ সেনা...
শার্শার বেনাপোলে মাতৃভাষা দিবসে দুই বাংলার মিলনমেলা
শার্শার বেনাপোলে মাতৃভাষা দিবসে দুই বাংলার মিলনমেল...
শেরপুরের শ্রীবরদীতে বাস-ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষে ট্রলির হেলপার নিহত 
শেরপুরের শ্রীবরদীতে বাস-ট্রলির মুখোমুখি সংঘর্ষে ট্...

Log in

Not registered? Join us FREE